৬ষ্ঠ বাংলাদেশ জুনিয়র সায়েন্স অলিম্পিয়াড

বিডিজেএসও হাই-পারফরমেন্স ক্যাম্প

প্রতিবছরের মত এবারও আমরা আয়োজন করছি বিডিজেএসও হাই পারফরম্যান্স ক্যাম্প ২০২০। তবে বিশ্বজুড়ে করোনাভাইরাসের মহামারীর কারণে উদ্ভূত বিশেষ পরিস্থিতির জন্য অন্যবারের মত এবার ঢাকায় ক্যাম্প আয়োজন করা যাচ্ছে না। বরাবরের মত হাই পারফরম্যান্স ক্যাম্প আয়োজিত হবে শুধু নির্বাচিত শিক্ষার্থীদের জন্য। যারা গত বছর আঞ্চলিক পর্বে বিজয়ী হয়ে জাতীয় পর্বের জন্য নির্বাচিত হয়েছিলো শুধু তারাই এই ক্যাম্পে অংশ নিতে পারবে। ক্যাম্পে অংশ নিতে নিচের শর্তাবলী পুরণ করতে হবে।

১. ২০১৯ সালের বিডিজেএসও আঞ্চলিক পর্বের বিজয়ী শিক্ষার্থী।
২. জন্ম ২০০৫ সালের ১ জানুয়ারি বা তার পরে।
৩. বর্তমানে ৬ষ্ঠ-১১শ শ্রেণির শিক্ষার্থী।

ক্যাম্পের তারিখ: ৩১ মার্চ ২০২০ থেকে ৪ এপ্রিল ২০২০
ক্যাম্পের সময়: সকাল ১০:০০ - ১১:৩০ ও সন্ধ্যা ৭:০০ - ৭:৩০
প্রতিদিন ২বার ক্লাস হবে। প্রতি ক্লাস দেড় ঘন্টা করে।

সাধারণভাবে প্রতিদিন দুইটি সেশনে লাইভ ক্লাস হবে। তবে এই সময় পরিবর্তন হতে পারে। ক্যাম্পটিতে অংশ নিতে চাইলে প্রথমে ওপরের HP Camp Registration বাটনে ক্লিক করে রেজিস্ট্রেশন করতে হবে।  ফর্মটি পূরণকৃত শিক্ষার্থীদের তথ্য যাচাইবাছাই করে ক্যাম্পে অংশ নেওয়ার নিয়মাবলী, প্রয়োজনীয় পাসওয়ার্ড ও অন্যান্য তথ্য মেইলে বা মোবাইলে ম্যাসেজের মাধ্যমে জানানো হবে।

ক্যাম্পটি আয়োজিত হবে অনলাইনে। অনলাইনে ক্যাম্পটি আয়োজনের জন্য গুগল ক্লাসরুম (Google Classroom) ব্যবহার করা হবে। ক্লাস নেওয়ার জন্য ব্যবহার করা হবে জুম (Zoom) প্ল্যাটফর্ম। অংশ নিতে হলে নিচের সার্ভিসগুলো ব্যাবহারের সুযোগ থাকতে হবে।

১. একটি জিমেইল (gmail.com) একাউন্ট থাকতে হবে। না থাকলে এখনই gmail.com-এ গিয়ে বিনামূল্যে একটি একাউন্ট খুলে নেওয়া যাবে।
২. স্মার্টফোন ব্যবহার করে ক্যাম্পে অংশ নিতে চাইলে মোবাইলে প্লেস্টোর বা অ্যাপস্টোর থেকে "Google Classroom" অ্যাপটি ডাউনলোড করে জিমেইল একাউন্ট দিয়ে লগ ইন করতে হবে। ল্যাপটপ বা ডেস্কটপ কম্পিউটার ব্যবহার করে ক্যাম্পে অংশ নিতে চাইলে যে কোন ব্রাউজার দিয়ে classroom.google.com-এই ওয়েবসাইটে গিয়ে জিমেইল একাউন্ট ব্যবহার করে লগ ইন করেই অংশ নেওয়া যাবে।
৩. ক্লাসগুলো নেওয়া হবে জুম (Zoom) প্ল্যাটফর্ম ব্যবহার করে। তাই স্মার্টফোন ব্যবহার করে অংশ নিতে চাইলে প্লেস্টোর থেকে Zoom Cloud Meetings অ্যাপটি মোবাইলে ইন্সটল করে নিতে হবে। ল্যাপটপ বা ডেস্কটপ কম্পিউটার দিয়ে অংশ নিতে চাইলে https://zoom.us/download এই ওয়েবসাইটে গিয়ে জুম সফটওয়ারটি কম্পিউটারে ডাউনলোড করে ইন্সটল করে নিতে হবে।
৪. যেহেতু ক্যাম্পটি হবে অনলাইনে এজন্য অবশ্যই ইন্টারনেট কানেকশন থাকতে হবে। ক্লাসগুলো অনলাইনে হবে, তাই লাইভ ভিডিও ক্লাসে অংশ নিতে ব্রডব্যান্ড ইন্টারনেট কানেকশন বা পর্যাপ্ত ইন্টারনেট ডাটার প্রয়োজন হবে। ব্রডব্যান্ড কানেকশন না থাকলে মোবাইলে একটি বড় (৫-৬ জিবি) ইন্টারনেট প্যাকেজ কিনে নেওয়া যেতে পারে। বাকি টেকনিক্যাল তথ্য নির্বাচিত শিক্ষার্থীদের মেইলে জানিয়ে দেওয়া হবে। কীভাবে গুগল ক্লাসরুম, জুম ও অন্যান্য সার্ভিস ব্যবহার করে ক্লাসে অংশ নেওয়া যাবে তা শেখানোর জন্য আলাদা ব্যবস্থা করা হবে।

ক্যাম্পের পাঠ্যসূচি

ক্যাম্পটিতে আন্তর্জাতিক জুনিয়র সায়েন্স অলিম্পিয়াডে অংশ নেওয়ার প্রস্তুতির জন্য পদার্থবিজ্ঞান, রসায়ন, জীববিজ্ঞান, গণিত ও সমস্যা সমাধান সম্পর্কে যে দক্ষতা থাকা দরকার তার প্রস্তুতিমূলক বিষয়াদি আলোচিত হবে। এছাড়া পূর্বের বাংলাদেশ জুনিয়র সায়েন্স অলিম্পিয়াড, আন্তর্জাতিক জুনিয়র সায়েন্স অলিম্পিয়াডের সমস্যা কীভাবে সমাধান করতে হয় তাও শেখানো হবে। ক্যাম্পে প্রতিটি ক্লাসে কিছু সমস্যা দেওয়া হবে হোমওয়ার্ক হিসেবে। এছাড়া ক্যাম্প শেষে একটি পরীক্ষাও নেওয়া হবে।

ক্যাম্পের মূল্যায়ন পদ্ধতি

১. লাইভ ক্লাসে অংশগ্রহণ (২০%)
২. ক্লাসওয়ার্ক/হোমওয়ার্ক (৪০%)
৩. মূল্যায়ন পরীক্ষা (৪০%)

ক্যাম্পের মেন্টর

ক্যাম্পটি পরিচালনা করবেন আন্তর্জাতিক জুনিয়র সায়েন্স অলিম্পিয়াডের বাংলাদেশের দলের প্রশিক্ষকবৃন্দ। বিশেষ কিছু ক্লাস নিবেন পূর্বের বছরগুলোতে আন্তর্জাতিক জুনিয়র সায়েন্স অলিম্পিয়াডে পদকপ্রাপ্ত শিক্ষার্থীরা।

ক্যাম্পের অংশগ্রহণকারীরা পরবর্তিতে যে সকল সুবিধা পেতে পারে

১. সফলভাবে ক্যাম্প সম্পন্ন করা শিক্ষার্থীদের সার্টিফিকেট প্রদান করা হবে।
২. এই ক্যাম্পের পারফরম্যান্স থেকে নির্বাচিত শিক্ষার্থীদের আরও প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করা হবে।
৩. বাংলাদেশ জুনিয়র সায়েন্স অলিম্পিয়াড ২০২০-এর বিভিন্ন পর্যায়ে শিক্ষার্থী নির্বাচনে এই ক্যাম্পের পারফরম্যান্স বিবেচিত হতে পারে।

যোগাযোগ: info@bdjso.org
info@spsb.org

১৬তম আন্তর্জাতিক জুনিয়র সায়েন্স অলিম্পিয়াড
বাংলাদেশের রেকর্ড সাফল্য : চার রৌপ্য ও দুই ব্রোঞ্জপদক জয়

১৬ তম আন্তর্জাতিক জুনিয়র সায়েন্স অলিম্পিয়াডে (আইজেএসও) বাংলাদেশ চারটি রৌপ্য ও দুইটি ব্রোঞ্জপদক অর্জন করেছে। ৭০টি দেশের অংশগ্রহণে অনুর্ধ্ব-১৬ বয়সীদের আন্তর্জাতিক এই অলিম্পিয়াডটি কাতারের রাজধানী দোহায় ৩-১১ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত হয়। এতে ৬ সদস্যের বাংলাদেশ দল অংশ নিয়ে সবাই পদক জয়ের গৌরব অর্জন করে। ১১ ডিসেম্বর দুপুরে দোহায় কাতার ন্যাশনাল কনভেনশন সেন্টারে এক জমকালো অনুষ্ঠানে বিজয়ীদের হাতে পদক তুলে দেওয়া হয়।

বাংলাদেশের পক্ষে রৌপ্যপদক জয় করেন বীরশ্রেষ্ঠ নূর মোহাম্মদ পাবলিক কলেজের অভিষেক মজুমদার সন্তু, বরিশাল ক্যাডেট কলেজের মুহতাসিন আল ক্বাফি, মুমিনুন্নিসা সরকারি মহিলা কলেজের কাজী তাসফিয়া জাহিন, ব্লু-বার্ড স্কুল এন্ড কলেজের জাকিয়া তাজনূর চৌধুরী দিয়া। এছাড়া ব্রোঞ্জপদক অর্জন করে ময়মনসিংহ জিলা স্কুলের জুহায়ের মাহদিউল আলম আশফি এবং গ্রীন ফিল্ড ইন্টারন্যাশনাল স্কুল এন্ড কলেজের আহমেদ আল-জুবায়ের আনাম। 

মাধ্যমিক পর্যায়ের শিক্ষার্থীদের জন্য আয়োজিত আন্তর্জাতিক অলিম্পিয়াডে বাংলাদেশ দল পঞ্চমবারের মতো অংশ নিয়েছে। ৭০টি দেশের শিক্ষার্থীদের সঙ্গে পদার্থবিজ্ঞান, রসায়ন ও জীববিজ্ঞানের ওপর প্রতিযোগিতা করে এই গৌরব অর্জন করে বাংলাদেশের শিক্ষার্থীরা। ৩ ডিসেম্বর শুরু হওয়া এই অলিম্পিয়াডে শিক্ষার্থীরা এমসিকিউ, থিওরি ও ব্যবহারিক অংশের পরীক্ষা দেয়। উল্লেখ্য, এর আগে চার বছরে বাংলাদেশ দল ৬টি রৌপ্য ও ১১টি ব্রোঞ্জ পদক অর্জন করেছিল।

গত জুলাই মাস থেকে আটটি আঞ্চলিক পর্ব, সাতটি স্কুল অলিম্পিয়াড ও একটি ই-অলিম্পিয়াডে অংশ নেয় প্রায় নয় হাজার শিক্ষার্থী। এদের মধ্য থেকে জাতীয় পর্যায়ে বিজয়ী হয়ে ধাপে ধাপে ছয়জনের বাংলাদেশ  দল গঠন করা হয়। যারা আন্তর্জাতিক জুনিয়র সায়েন্স অলিম্পিয়াডে অংশগ্রহণ করে।

১৬তম আন্তর্জাতিক জুনিয়র সায়েন্স অলিম্পিয়াডে অংশ নিচ্ছে বাংলাদেশ দল

কাতারের দোহায় চলছে ১৬তম আন্তর্জাতিক জুনিয়র সায়েন্স অলিম্পিয়াড (আইজেএসও)। ছয় সদস্যের বাংলাদেশ দল অংশ নিচ্ছে এই প্রতিযোগিতায়। বাংলাদেশ দলের সদস্যরা হল (ছবিতে বাম থেকে)-

  • জাকিয়া তাজনূর চৌধুরী দিয়া (ব্লু-বার্ড স্কুল এন্ড কলেজ, সিলেট)
  • অভিষেক মজুমদার সন্তু (বীরশ্রেষ্ঠ নূর মোহাম্মদ পাবলিক কলেজ, ঢাকা)
  • জুহায়ের মাহদিউল আলম আশফি (ময়মনসিংহ জিলা স্কুল, ময়মনসিংহ)
  • মুহতাসিন আল ক্বাফি (বরিশাল ক্যাডেট কলেজ, বরিশাল)
  • আহমেদ আল-জুবায়ের আনাম (গ্রীন ফিল্ড ইন্টারন্যাশনাল স্কুল এন্ড কলেজ, গাইবান্ধা)
  • কাজী তাসফিয়া জাহিন (‎মুমিনুন্নিসা সরকারি মহিলা কলেজ, ময়মনসিংহ)

উল্লেখ্য, এবছর বাংলাদেশ দল নির্বাচনের জন্য জুলাই মাসে শুরু হয় আল-আরাফাহ্ ইসলামী ব্যাংক ৫ম বাংলাদেশ জুনিয়র সায়েন্স অলিম্পিয়াড (বিডিজেএসও)। দেশজুড়ে অনুষ্ঠিত হয় ৮টি আঞ্চলিক অলিম্পিয়াড, ৭টি স্কুল অলিম্পিয়াড ও একটি ই-অলিম্পিয়াড। এ আয়োজনগুলোতে অংশ নেয় প্রায় নয় হাজার শিক্ষার্থী। সব অঞ্চলের বিজয়ীদের নিয়ে ঢাকায় অনুষ্ঠিত হয় জাতীয় পর্ব । আঞ্চলিক পর্ব, স্কুল অলিম্পিয়াড ও ই-অলিম্পিয়াডে বিজয়ী প্রায় ৬০০ জন শিক্ষার্থী এতে অংশ নেয়। এরপর জাতীয় পর্বের বিজয়ীদের নিয়ে অনুষ্ঠিত হয় ৫ম বিডিজেএসও ক্যাম্প। ক্যাম্পের ফলাফল ও পারফরম্যান্স টেস্টের মাধ্যমে সেরা ১৩ জন শিক্ষার্থী নিয়ে অনুষ্ঠিত হয় এক্সটেনশন ক্যাম্প। এক্সটেনশন ক্যাম্পে অনুষ্ঠিত বেশ কয়েকটি পরীক্ষা এবং টিম সিলেকশন টেস্ট ইত্যাদির মাধ্যমে নির্বাচিত করা করা হয়েছে ছয় সদস্যবিশিষ্ট এবারের বাংলাদেশ দল। 

সেপ্টেম্বর থেকে নভেম্বর পর্যন্ত কয়েকটি ধাপে প্রশিক্ষণ দেয়া হয় বাংলাদেশ দলকে। ভলান্টিয়ারস এসোসিয়েশন ফর বাংলাদেশ ও আপন উদ্যোগ ফাউন্ডেশনের ডরমিটরিতে তিন ধাপে মোট ২১ দিনের আবাসিক ক্যাম্প অনুষ্ঠিত হয়। এছাড়া মাকসুদুল আলম বিজ্ঞান ল্যাবরেটরি (ম্যাসল্যাব)-এ আয়োজিত হয় তিন দফায় ১৫ দিনের অনাবাসিক ক্যাম্প। ল্যাবরেটরি ক্লাসগুলো অনুষ্ঠিত হয় ম্যাসল্যাবে। এই প্রশিক্ষণ কর্মসূচীতে ১০০ ঘণ্টার বেশি থিওরি ক্লাস, ৫০ ঘণ্টার বেশি ল্যাবরেটরি ক্লাস ও প্রায় ৭০ ঘণ্টার প্রশ্ন সমাধান ক্লাসে অংশ নেয় ১৬তম আইজেএসও-তে অংশ নিতে যাওয়া বাংলাদেশ দলের ছয় সদস্য। ক্লাসগুলি পরিচালনা করেন বাংলাদেশ জুনিয়র সায়েন্স অলিম্পিয়াডের ট্রেইনাররা।

বাংলাদেশ জুনিয়র সায়েন্স অলিম্পিয়াডের আয়োজক বাংলাদেশ বিজ্ঞান জনপ্রিয়করণ সমিতি ও বাংলাদেশ ফ্রিডম ফাউন্ডেশন। পৃষ্ঠপোষকতা করেছে আল-আরাফাহ্ ইসলামী ব্যাংক লিমিটেড। সহযোগী হিসেবে ছিল প্রথম আলো। বিশেষ সহযোগী হিসেবে ছিল ভলান্টিয়ারস এসোসিয়েশন ফর বাংলাদেশ। এছাড়া নলেজ পার্টনার ম্যাসল্যাব, টেলিভিশন পার্টনার নাগরিক টিভি, ম্যাগাজিন পার্টনার বিজ্ঞানচিন্তা ও কিশোর আলো, ইন্টারনেট পার্টনার অ্যাম্বার আইটি এবং রেডিও পার্টনার হিসেবে ছিল ঢাকা এফএম।

বাংলাদেশ দলের জন্য শুভ কামনা।

জাতীয় পর্বের ফলাফল

জাতীয় পর্ব অনুষ্ঠিত হল ৬ সেপ্টেম্বর ২০১৯ তারিখ, ঢাকার গ্রীনরোডে ইউনিভার্সিটি অব এশিয়া প্যাসিফিকে। এতে ৫২ জনকে বিজয়ী ঘোষণা করা হয়েছে।

জাতীয় পর্বের নির্দেশনা | বিডিজেএসও ২০১৯

আল-আরাফাহ্ ইসলামী ব্যাংক ৫ম বাংলাদেশ জুনিয়র সায়েন্স অলিম্পিয়াডের আঞ্চলিক পর্ব, স্কুল অলিম্পিয়াড ও ই-অলিম্পিয়াডের বিজয়ীদের নিয়ে অনুষ্ঠিত হবে জাতীয় পর্ব। ইতোমধ্যে বিজয়ীদের তালিকা সাইটে প্রকাশ করা হয়েছে। তালিকা দেখা যাবে এই লিংকে। জাতীয় পর্ব অনুষ্ঠিত হবে আগামী ৬ সেপ্টেম্বর, ঢাকার ইউনিভার্সিটি অব এশিয়া প্যাসিফিকে। জাতীয় পর্বের ভেন্যু গুগল ম্যাপে দেখা যাবে এই লিংকে

জাতীয় পর্বের জন্য নির্বাচিত শিক্ষার্থীদের বিস্তারিত নির্দেশনা নিচে দেয়া আছে। এই নির্দেশনাটি ডাউনলোড করে বিজয়ী শিক্ষার্থীকে অবশ্যই তা অনুসরণ করতে হবে।

নিচে একটি বিজয়ী ফর্মের লিংক দেওয়া আছে। এই ফর্মটি পূরণ করে যত দ্রুত সম্ভব বাংলাদেশ বিজ্ঞান জনপ্রিয়করণ সমিতির অফিসে কুরিয়ার করে অথবা নিজে এসে পৌঁছে দিতে হবে। এই ফর্মের তথ্যানুসারে আইডি কার্ড ও অন্যান্য ম্যাটেরিয়াল তৈরি করা হবে। ফর্ম পৌঁছানোর ঠিকানা ফর্মের নিচে দেওয়া আছে। 

একইসঙ্গে বিজয়ী শিক্ষার্থীর শিক্ষা প্রতিষ্ঠান প্রধানের জন্যও একটি চিঠি নিচের লিংকে দেওয়া আছে। এই চিঠিটিও ডাউনলোড করে প্রিন্ট করতে হবে। প্রিন্ট করে ফাঁকা জায়গায় নিজ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের নাম লিখে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের প্রধানের কাছে পৌঁছে দিতে হবে। 

বিজয়ী ফর্ম

বিজয়ীকে এই ফর্মে প্রদত্ত ঠিকানায় যত দ্রুত সম্ভব ফর্মটি পূরণ করে পাঠাতে হবে। ফর্মের তথ্য অনুসারে  সার্টিফিকেট ও  আইডি কার্ড তৈরী করা হবে।

শিক্ষার্থীর জন্য চিঠি

সকল আঞ্চলিক পর্ব, স্কুল অলিম্পিয়াড এবং ই-অলিম্পিয়াডের বিজয়ী শিক্ষার্থীরা মনোযোগ দিয়ে এই নির্দেশনাটি পড়।

প্রতিষ্ঠান প্রধানের জন্য চিঠি

চিঠিটি প্রিন্ট করে বিজয়ী শিক্ষার্থীর শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের প্রধানের কাছে পৌঁছে দিতে হবে। [ঢাকায় পাঠাতে হবে না]

জাতীয় পর্বের ঘোষণা

জাতীয় পর্ব অনুষ্ঠিত হবে ৬ সেপ্টেম্বর ২০১৯ তারিখ, ঢাকার গ্রীনরোডে ইউনিভার্সিটি অব এশিয়া প্যাসিফিকে।

সবাইকে জাতীয় পর্বের জন্য প্রস্তুত হতে বলা হচ্ছে।

ই-ইলিম্পিয়াড

আঞ্চলিক পর্বের অনুরূপ একটি অনলাইন অলিম্পিয়াড অনুষ্ঠিত হয়েছে ৫ আগস্ট সন্ধ্যা সাড়ে সাতটায়। ফলাফল প্রকাশিত হয়েছে।

বিডিজেএসও ২০১৯ ফলাফল

৫ম বিডিজেএসও এর সকল আঞ্চলিক পর্ব ও স্কুল অলিম্পিয়াডের ফলাফল প্রকাশিত হয়েছে

সহায়ক বই

প্রস্তুতির জন্য সবার আগে পড়া চাই পাঠ্যবই। এরপর তালিকার অন্যান্য বই পড়া যেতে পারে।

বিগত বছরের প্রশ্ন

বিগত বছরের জুনিয়র, সেকেন্ডারি ও স্পেশাল ক্যাটাগরির কিছু প্রশ্ন এখানে দেখা যাবে।

শুরু হচ্ছে ৫ম বাংলাদেশ জুনিয়র সায়েন্স অলিম্পিয়াড

আল-আরাফাহ ইসলামি ব্যাংক ৫ম বাংলাদেশ জুনিয়র সায়েন্স অলিম্পিয়াড (বিডিজেএসও ২০১৯) এর কার্যক্রম আনুষ্ঠানিক ভাবে শুরু হচ্ছে। সেই উপলক্ষে এই বছরের অফিসিয়াল লোগো উন্মোচন করা হল।

এই বছর দেশের ৮টি বিভাগে আল-আরাফাহ ইসলামি ব্যাংক ৫ম বাংলাদেশ জুনিয়র সায়েন্স অলিম্পিয়াড (বিডিজেএসও ২০১৯) এর আঞ্চলিক পর্ব অনুষ্ঠিত হবে। সেই সাথে অনুষ্ঠিত হবে একটি ই-অলিম্পিয়াড।

বিডিজেএসও-র কলেবর বাড়ানোর জন্য এবছর আমরা প্রাইমারি ক্যাটাগরি যুক্ত করেছি।
সেই হিসেবে বিডিজেএসও-তে অংশ নেয়া যাবে ৪টি ক্যাটাগরিতে।
১. প্রাইমারি- তৃতীয় থেকে পঞ্চম শ্রেণি।
২. জুনিয়র- ষষ্ঠ থেকে অষ্টম শ্রেণি।
৩. সেকেন্ডারি- নবম ও দশম শ্রেণি।
৪. স্পেশাল- একাদশ শ্রেণি ও দ্বাদশ শ্রেণি (যাদের জন্ম ১ জানুয়ারি ২০০৪ এর পরে)।

শীঘ্রই আঞ্চলিক পর্বের রেজিষ্ট্রেশন শুরু হবে।
আগে এলে আগে পাবে ভিত্তিতে রেজিষ্ট্রেশন সম্পন্ন করা হবে।
রেজিষ্ট্রেশনের ঠিকানাসহ বিস্তারিত জানতে নিয়মিত চোখ রাখতে হবে এই ওয়েবসাইটে।

আয়োজক


পৃষ্ঠপোষক


সহযোগী


ম্যাগাজিন পার্টনার


হোস্ট